1. md.masudrana2008@gmail.com : admi2017 :
  2. info.motaharulhasan@gmail.com : motaharul :
নোয়াখালীতে আওয়ামী লীগের দুই পক্ষের সংঘর্ষ, আহত ৫ - Banglar Bibek

নোয়াখালীতে আওয়ামী লীগের দুই পক্ষের সংঘর্ষ, আহত ৫

  • আপডেট টাইম : রবিবার, ১ মে, ২০২২
  • ২১০ বার
ফাইল ফটো
4 / 100

অনলাইন ডেস্ক : নোয়াখালীর সুবর্ণচরে চালের কার্ড বিতরণ কেন্দ্র করে আওয়ামী লীগের দুই পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। এ সময় কয়েকটি মোটরসাইকেল ভাঙচুর করা হয়েছে। এতে উভয়পক্ষের অন্তত ৫ জন আহত হয়েছেন। রবিবার দুপুর ১২টার দিকে চরবাটা ইউনিয়নের তোতার বাজারে এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ৯ জনকে আটক করেছে পুলিশ।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, চরবাটা ইউনিয়নের বর্তমান চেয়ারম্যান আমিনুল ইসলাম রাজিব ও সাবেক চেয়ারম্যান মোজাম্মেল হোসেনের সমর্থকদের মধ্যে এ ঘটনা ঘটেছে। দুপুর তোতার বাজার সংলগ্ন ইউপি কার্যালয়ে ভিজিএফের ১০ কেজি করে চাল বিতরণ চলছিল। দুপুর ১২টার দিকে নিজেদের দলীয় কোটার কার্ড নিয়ে সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান মোজাম্মেল সমর্থকরা বর্তমান চেয়ারম্যান রাজিবের লোকজনদের সঙ্গে বাকবিতন্ডে জড়ায়। এক পর্যায়ে দুই পক্ষের মধ্যে পাল্টাপাল্টি ধাওয়া ও সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। এসময় সড়কে কয়েকটি মোটরসাইকেল ভাঙচুর করা হয়। ভাঙচুর করা হয় স্থানীয় এক ইউপি সদস্যের অফিস।

এ বিষয়ে সাবেক চেয়ারম্যান মোজাম্মেল হোসেন জানান, দলীয় কোটায় কার্ড না দেয়ার কারণে এ ঘটনা ঘটেছে। এ ঘটনার সাথে তার কোন সংশ্লিষ্টতা নেই।

বর্তমান চেয়ারম্যান আমিনুল ইসলাম রাজিব জানান, সাবেক চেয়ারম্যানের বাড়ির সামনে ইউপি পরিষদ হওয়ার কারণে তার লোকজন প্রতিদিনই সাধারণ মানুষকে পরিষদে আসতে বাধা দেয়। তারই জের ধরে ধাওয়ার ঘটনা ঘটেছে। তবে তার লোকজন ভাঙচুরের সঙ্গে জড়িত ছিল না। তিনি অভিযোগ করেন, মোজাম্মেলের লোকজন গাড়ি ভাংচুর করেছে এবং নিজেদের একটি অফিস নিজেরা ভাঙচুর করে।

চরজব্বার থানার ওসি জিয়াউল হক ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, পূর্ব শত্রুতার জের ধরে দুই পক্ষের মধ্যে চালের কার্ড নিয়ে সংঘর্ষ হয়েছে। পরে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। এ ঘটনায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ৯ জনকে আটক করে পুলিশ।

বাংলার বিবেক /এম এস

খবরটি শেয়ার করুন..

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এ ক্যাটাগরীর আরো সংবাদ
© All rights reserved © 2020 BanglarBibek
Customized BY NewsTheme