1. md.masudrana2008@gmail.com : admi2017 :
  2. info.motaharulhasan@gmail.com : motaharul :

গাজায় ইসরায়েলের হামলা গণহত্যার শামিল: প্রেসিডেন্ট এরদোগান

  • আপডেট টাইম : বৃহস্পতিবার, ২৬ অক্টোবর, ২০২৩
  • ২২ বার
গাজায় ইসরায়েলের হামলা গণহত্যার শামিল: প্রেসিডেন্ট এরদোগান
গাজায় ইসরায়েলের হামলা গণহত্যার শামিল: প্রেসিডেন্ট এরদোগান

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : অবরুদ্ধ গাজা উপত্যকায় ইসরায়েলের হামলা ‘গণহত্যার পর্যায়ে পৌঁছেছে’ এবং আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের নীরবতা ‘মানবতার জন্য লজ্জাজনক’ বলে মন্তব্য করেছেন তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রজব তাইয়েব এরদোগান। বৃহস্পতিবার হামাস-ইসরায়েল যুদ্ধ নিয়ে পোপ ফ্রান্সিসের সাথে টেলিফোনে আলাপকালে এই মন্তব্য করেছেন তিনি।

এরদোগান বলেন, গাজায় নিরীহ বেসামরিক লোকজনকে নিরবচ্ছিন্ন সহায়তা প্রদানের প্রচেষ্টায় সকলের সমর্থন জানানো উচিত। ফিলিস্তিন-ইসরায়েল ইস্যুতে তুরস্কের অবস্থান পুনর্ব্যক্ত করে এরদোগান বলেন, স্বাধীন ফিলিস্তিনি রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠার মাধ্যমেই এই সংঘাতের স্থায়ী সমাধান সম্ভব। এর আগে, বুধবার ফিলিস্তিনের স্বাধীনতার দাবিতে লড়াই করে আসা গাজা উপত্যকার ক্ষমতাসীনগোষ্ঠী হামাসকে পশ্চিমারা ‘সন্ত্রাসী’ সংগঠন হিসেবে দেখায় এর তীব্র সমালোচনা করেন রজব তাইয়েব এরদোগান। তিনি বলেন, হামাস সন্ত্রাসী সংগঠন নয়, বরং তারা স্বাধীনতাকামী যোদ্ধা; যারা নিজেদের ভূমি রক্ষার জন্য লড়াই করছেন।

আঙ্কারায় তুরস্কের ক্ষমতাসীন রাজনৈতিক দল একে পার্টির নেতাকর্মীদের এক সমাবেশে এই মন্তব্য করেন এরদোগান। গাজায় বেসামরিক নাগরিকদের ওপর ইসরায়েলের নির্বিচার হামলা ও হত্যাযজ্ঞের নিন্দাও জানান তিনি। এ সময় তার আসন্ন ইসরায়েল সফরের পরিকল্পনা বাতিলের ঘোষণা দেন এরদোগান। ‘গাজায় যা ঘটছে তা যুদ্ধ নয়, বরং গণহত্যা’ উল্লেখ করে অবিলম্বে এই সংঘাত বন্ধের আহ্বান জানিয়েছেন ব্রাজিলের প্রেসিডেন্ট লুলা ডি সিলভা। তিনি বলেছেন, গাজায় সংঘাত কোনও যুদ্ধ নয় বরং ‘গণহত্যা’; যা হাজার হাজার শিশুর প্রাণ কেড়ে নিচ্ছে।

বৃহস্পতিবার ব্রাজিলের প্রেসিডেন্ট প্রাসাদে ফেডারেশন কাউন্সিলের এক অনুষ্ঠানে অংশ নিয়ে হামাস-ইসরায়েল যুদ্ধ সম্পর্কে এমন মন্তব্য করেছেন লুলা ডি সিলভা। ব্রাজিলের সংবাদমাধ্যমের খবরে বলা হয়েছে, কাতারের আমির তামিন বিন হামাদ আল-থানির সাথে মধ্যপ্রাচ্যের এই যুদ্ধ কীভাবে থামানো যায়, সেই বিষয়ে টেলিফোনে কথা বলবেন তিনি। ‘এটা কোনও যুদ্ধ নয়, এটা গণহত্যা। প্রায় ২ হাজার শিশুকে হত্যা করা হয়েছে; যাদের এই যুদ্ধের সঙ্গে কোনও সম্পর্ক নেই, তারা এই যুদ্ধের শিকার হয়েছে। যুদ্ধের ফলে নিষ্পাপ শিশুরা মারা যাবে, এটা জানার পরও একজন মানুষ কীভাবে যুদ্ধ করতে পারেন, তা আমি সত্যিই জানি না,’ বলেন লুলা।

গত ৭ অক্টোবর গাজা উপত্যকার নিয়ন্ত্রণকারীগোষ্ঠী হামাসের ইসরায়েলে আকস্মিক হামলার পাল্টায় গাজাজুড়ে বোমা হামলা শুরু করে ইসরায়েল। দুই সপ্তাহের বেশি সময় ধরে চলমান এই যুদ্ধে ইসরায়েলের হামলায় ৬ হাজার ৫০০ জনের বেশি ফিলিস্তিনির প্রাণহানি ঘটেছে। যুদ্ধ শুরুর পরপরই সর্বাত্মক অবরোধ আরোপের ঘোষণা দিয়ে গাজা উপত্যকায় বিদ্যুৎ, পানি ও জ্বালানির সরবরাহ পুরোপুরি বন্ধ করে দিয়েছে ইসরায়েল। ইসরায়েলের টানা হামলার কারণে গাজার প্রায় ১৪ লাখ মানুষ ইতিমধ্যে বাস্তুচ্যুত হয়েছেন। –আল জাজিরা, রয়টার্স

খবরটি শেয়ার করুন..

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ ক্যাটাগরীর আরো সংবাদ
© All rights reserved © 2020 BanglarBibek
Customized BY NewsTheme