1. md.masudrana2008@gmail.com : admi2017 :
  2. info.motaharulhasan@gmail.com : motaharul :
দেশের উত্তর-পূর্বে বন্যার পদধ্বনি - Banglar Bibek

দেশের উত্তর-পূর্বে বন্যার পদধ্বনি

  • আপডেট টাইম : বুধবার, ১৮ মে, ২০২২
  • ৫২ বার
6 / 100

অনলাইন ডেস্কআসাম ও মেঘালয় থেকে ধেয়ে আসছে বন্যার পানি। সেই পানি যতই নামছে আমাদের উত্তর-পূর্বাঞ্চলে ততই বন্যার পরিস্থিতি খারাপ হচ্ছে। বিশেষ করে সিলেট এবং সুনামগঞ্জ জেলার বন্যার পরিস্থিতি সবচেয়ে খারাপ। অধিকাংশ নদ-নদীর পানি বিপৎসীমার ওপরে বইছে। এরই মধ্যে সিলেটের চারটি উপজেলাকে দুর্গত এলাকা ঘোষণার দাবিতে স্মারকলিপি দিয়েছে স্থানীয় একটি সংগঠন।

সিলেটে বন্যার আরও অবনতির আশঙ্কা : দেশের মধ্যে ভারী বৃষ্টি ও উজান থেকে নেমে আসা ঢলে দেশের উত্তর-পূর্বাঞ্চলের (সিলেট বিভাগ) দুই নদীর পানি পাঁচটি পয়েন্টে বিপৎসীমার ওপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। এতে সিলেটের বিভিন্ন অঞ্চলে বন্যা পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়েছে। ওই অঞ্চলের নদীর পানি আরও বেড়ে বন্যা পরিস্থিতির অবনতি হতে পারে বলে পূর্বাভাস দিয়েছে বাংলাদেশ পানি উন্নয়ন বোর্ডের (বাপাউবো) বন্যা পূর্বাভাস ও সতর্কীকরণ কেন্দ্র।

গতকাল মঙ্গলবার দুপুরে নদ-নদীর পরিস্থিতি ও পূর্বাভাস প্রতিবেদনে বন্যা পূর্বাভাস ও সতর্কীকরণ কেন্দ্র জানিয়েছে, দেশের উত্তর-পূর্বাঞ্চলের আপার মেঘনা অববাহিকার প্রধান নদ-নদীগুলোর পানি বাড়ছে। সমতল বৃদ্ধি পাচ্ছে, যা আগামী ৪৮ ঘণ্টা পর্যন্ত অব্যাহত থাকতে পারে এবং উত্তর-পূর্বাঞ্চল ও পূর্বাঞ্চলের প্রধান নদীগুলোর (সুরমা, কুশিয়ারা, ভোগাই-কংস, ধনু-বাউলাই, মনু, খোয়াই, মুহুরী) পানি সমতলে কয়েকটি পয়েন্টে সময়বিশেষে দ্রুত বাড়তে পারে।

আগামী ২৪ ঘণ্টায় দেশের উত্তর-পূর্বাঞ্চলে সিলেট ও সুনামগঞ্জ জেলার নিম্নাঞ্চলের কয়েকটি স্থানে বন্যা পরিস্থিতির অবনতি হতে পারে বলেও পূর্বাভাসে জানানো হয়েছে। সোমবার দুপুর থেকে সুরমা নদীর তীর উপচে সিলেট নগরের বিভিন্ন এলাকায় পানি ঢুকতে শুরু করে । এতে তলিয়ে যায় নগরের সর্ববৃহৎ পাইকারি বাজার কালিঘাট, তালতলা, কাজিরবাজার, বেতবাজার, শাহজালাল উপশহর, সোবহানিঘাট, ছড়ারপাড়, শেখঘাট, ঘাসিটুলা, মাছিমপুর, তেরতন, হবিনন্দী, সাদিপুরসহ বিভিন্ন এলাকা। এসব এলাকার বাসাবাড়ি, দোকানে পানি ঢুকেছে।

পানি উন্নয়ন বোর্ড জানিয়েছে, মঙ্গলবার সুরমা নদীর পানি কানাইঘাটে (সিলেট) বিপৎসীমার ১৪৩ সেন্টিমিটার, সিলেটে ২৯ সেন্টিমিটার ও সুনামগঞ্জে ৩৫ মিলিমিটারের উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। এছাড়া কুশিয়ারার পানি অমলশীদে (সিলেট) বিপৎসীমার ১৩৮ সেন্টিমিটার ও শেওলা (সিলেট) স্টেশনে ৪৫ সেন্টিমিটার উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে।

বাপাউবোর বন্যা পূর্বাভাস ও সতর্কীকরণ কেন্দ্রের নির্বাহী প্রকৌশলী মো. আরিফুজ্জামান ভূঁইয়া বলেন, ব্রহ্মপুত্র-যমুনা ও গঙ্গা-পদ্মা নদ-নদীর পানি বাড়ছে, যা আগামী ৭২ ঘণ্টা পর্যন্ত অব্যাহত থাকতে পারে।

আবহাওয়া সংস্থাগুলোর গাণিতিক মডেলভিত্তিক পূর্বাভাস তুলে ধরে তিনি বলেন, আগামী ৪৮ ঘণ্টায় দেশের উত্তরাঞ্চল, উত্তর-পূর্বাঞ্চল, পূর্বাঞ্চল এবং তৎসংলগ্ন ভারতের আসাম, মেঘালয়, হিমালয় পাদদেশীয় পশ্চিমবঙ্গ, ত্রিপুরা ও মিজোরাম প্রদেশের কতিপয় স্থানে ভারী বৃষ্টিপাতের সম্ভাবনা রয়েছে।

নির্বাহী প্রকৌশলী আরও বলেন, দেশের উত্তরাঞ্চলের ধরলা, তিস্তা ও দুধকুমার নদীর পানি সমতলে বৃদ্ধি পাচ্ছে, যা আগামী ২৪ ঘণ্টা পর্যন্ত অব্যাহত থাকতে পারে এবং সময়বিশেষে দ্রুত বৃদ্ধি পেতে পারে। সুনামগঞ্জে বেড়েছে সুরমা নদীর পানি সুনামগঞ্জে টানা ৯ দিন বৃষ্টিপাত চলছে। এ ছাড়া ভারতের মেঘালয় ও চেরাপুঞ্জিতেও এক সপ্তাহ ধরে অস্বাভাবিক বৃষ্টিপাত হচ্ছে। এতে পাহাড়ি ঢলে সুনামগঞ্জের সুরমা নদীসহ সব শাখা নদীর পানি বেড়ে বিপৎসীমার ওপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। ইতিমধ্যে প্লাবিত হয়েছে পুরো জেলার নিম্নাঞ্চল। গতকাল মঙ্গলবার সুনামগঞ্জ সুরমা নদীর পানি বিপৎসীমার ৩৬ সেন্টিমিটার ওপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। এতে সুনামগঞ্জ শহরের নবীনগর, উকিলপাড়া, তেঘরিয়াসহ বিভিন্ন আবাসিক এলাকায় সুরমা নদীর পানি ঢুকে পড়েছে।

সুনামগঞ্জ পানি উন্নয়ন বোর্ড জানিয়েছে, মেঘালয়ে আজ ও কাল ভারী বৃষ্টিপাতের সম্ভাবনা রয়েছে। এতে সুনামগঞ্জের সুরমাসহ সবকটি শাখা নদী ও হাওরের পানি আরও বৃদ্ধি পেয়ে বন্যা পরিস্থিতির অবনতি হওয়ার আশঙ্কা রয়েছে।

জেলার বিভিন্ন এলাকায় খোঁজ নিয়ে জানা যায়, পাহাড়ি ঢল ও টানা বর্ষণে সুনামগঞ্জের তাহিরপুর উপজেলা, দোয়ারাবাজার ও বিশ^ম্ভরপুরসহ সব উপজেলার প্রায় সবকটি এলাকা প্লাবিত হয়েছে। একই ভাবে প্লাবিত হয়ে পড়েছে ছাতক উপজেলার বিস্তীর্ণ এলাকা। পাহাড়ি ঢলের কারণে জেলার তাহিরপুর ও বিশ^ম্ভরপুর উপজেলার বেশ কয়েকটি গ্রামের কাঁচা ঘরবাড়ি বিধ্বস্ত হয়েছে।

সম্প্রতি জেলায় ১৫টিরও বেশি হাওরের ফসলরক্ষা বাঁধ ভেঙে পানি ঢোকায় তড়িঘড়ি করে ধান কেটে নিয়েছিলেন যেসব কৃষক, তারাও নতুন বিপদের সম্মুখীন হয়েছেন।

স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদফতরের (এলজিইডি) সুনামগঞ্জ জেলা নির্বাহী প্রকৌশলী মো. মাহবুব আলম জানিয়েছেন, গত দুই দিনে নদ-নদীগুলোয় পানির চাপ অস্বাভাবিকভাবে বাড়ায় সুনামগঞ্জের গজারিয়া নদীর রাবার ড্যামের পাম্প হাউস নদীতে বিলীন হয়ে গেছে।এখন পর্যন্ত সুনামগঞ্জ জেলার নিম্নাঞ্চলে ৮ থেকে ১০ কোটি টাকার ক্ষতি হয়েছে বলে জানিয়েছেন তিনি।

সুনামগঞ্জ পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী জহুরুল ইসলাম বলেন, ভারতের মেঘালয়ে কয়েক দিন ধরে বৃষ্টিপাতের ফলে সুনামগঞ্জের নদ-নদীতে পানি বাড়ছে। ইতিমধ্যেই জেলার নিম্নাঞ্চল প্লাবিত হয়ে গেছে। আজ নদ-নদীর পানি বেড়ে বিপৎসীমার ওপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। সুনামগঞ্জ ও মেঘালয়ে ভারী বৃষ্টিপাতের সম্ভাবনা থাকায় বন্যা সতর্কতা জারি করা হয়েছে।

সিলেটের চার উপজেলাকে বন্যাদুর্গত অঞ্চল ঘোষণার দাবি

সিলেটের জৈন্তাপুর, গোয়াইনঘাট, কানাইঘাট ও কোম্পানীগঞ্জ এই চার উপজেলাকে বন্যাদুর্গত এলাকা হিসেবে ঘোষণার দাবি জানিয়ে জেলা প্রশাসকের কাছে স্মারকলিপি দিয়েছে জৈন্তিয়া কেন্দ্রীয় পরিষদ নামের স্থানীয় একটি সংগঠন। গতকাল মঙ্গলবার দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে সংগঠনের নেতারা জেলা প্রশাসক মো. মজিবর রহমান বরাবর এই স্মারকলিপি জমা দেন।

স্মারকলিপিতে ওই চার উপজেলাকে বন্যাদুর্গত এলাকা ঘোষণা করে দ্রুত পর্যাপ্ত ত্রাণসহায়তা প্রদানের পাশাপাশি তলিয়ে যাওয়া রাস্তাঘাট মেরামতের জন্য প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়ার দাবি জানানো হয়।

স্মারকলিপি জমা দেওয়ার সময় সংগঠনের সভাপতি এ টি এম বদরুল ইসলাম, সাধারণ সম্পাদক জামাল উদ্দিন, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক গিয়াস আহমদ, সহসভাপতি হাছান আহমদ, মো. নজমুল ইসলাম, আবুল হাশেম প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন। এ টি এম বদরুল ইসলাম প্রথম আলোকে জানান, জেলা প্রশাসনের তথ্য শাখায় জেলা প্রশাসক বরাবর তারা স্মারকলিপিটি জমা দিয়েছেন।

স্মারকলিপিতে বলা হয়, এ বছর কয়েক দফা বন্যায় জৈন্তাপুর, গোয়াইনঘাট, কানাইঘাট ও কোম্পানীগঞ্জ উপজেলায় ফসল নষ্ট হয়েছে। একাধিক রাস্তাঘাট চলাচলের অনুপযোগী হয়ে পড়েছে। চলমান বন্যা পরিস্থিতিতেও অনেকের বাড়িঘরে পানি উঠেছে। এসব উপজেলার অধিকাংশ মানুষ পানিবন্দি অবস্থায় খাবারের সংকটে আছে। শ্রমজীবী মানুষ কর্মহীন হয়ে পড়েছেন। তাই এসব উপজেলাকে বন্যা দুর্গত অঞ্চল ঘোষণা করা উচিত।

বাংলার বিবেক /এম এস

খবরটি শেয়ার করুন..

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এ ক্যাটাগরীর আরো সংবাদ
© All rights reserved © 2020 BanglarBibek
Customized BY NewsTheme